ওয়ার্নের দলে টেন্ডুলকার নেই, আছেন মুনাফ-ত্রিভেদী

খেলাধুলা

ক্যারিয়ারে অনেক বড় একটা সময়জুড়ে দুজনের দারুণ প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছিল। শেন ওয়ার্ন লেগ স্পিনের ঘূর্ণিতে নিতে চাইতেন শচীন টেন্ডুলকারের উইকেট, টেন্ডুলকার ডাউন দ্য উইকেটে এসে ওয়ার্নের বলগুলো আছড়ে ফেলতে চাইতেন সীমানায়। তবে দুজনের যে একে অন্যের প্রতি সম্মানের শেষ নেই, তা জানিয়ে দিতেও সব সময়ই অকুণ্ঠ ছিলেন ওয়ার্ন-টেন্ডুলকার। তবে সেই ওয়ার্নই এবার নিজের বেছে নেওয়া একটা একাদশে রাখেননি টেন্ডুলকারকে!

ক্রিকেটের প্রায় সব একাদশে টেন্ডুলকার অনায়াসেই ঢুকে যাবেন সত্যি, তবে ওয়ার্নের এই দলে ভারতীয় ব্যাটিং কিংবদন্তিকে না রাখা নিয়ে সম্ভবত বিতর্ক খুব বেশি হবে না। দলটা যে ওয়ার্নের চোখে শুধু ভারতীয় ক্রিকেটারদের নিয়ে গড়া আইপিএলের সেরা একাদশ! আর আইপিএলে টেন্ডুলকার খেলেছেনই সব মিলিয়ে মাত্র ৭৮ ম্যাচ। তাতে ১টি সেঞ্চুরি ও ১৩টি ফিফটি মিলিয়ে তাঁর রান ২৩৩৪। গড় ৩৪.৮৬, স্ট্রাইক রেট ১১৯.৮১। তবে টেন্ডুলকার না থাকলেও এই দলে বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, মহেন্দ্র সিং ধোনিরা আছেন। আর চমক হয়ে হয়তো আসবে তুলনায় অখ্যাত মুনাফ প্যাটেল আর সিদ্ধার্থ ত্রিভেদীর জায়গা পাওয়া।

একসঙ্গে ওয়ার্ন ও টেন্ডুলকার। ছবি: এএফপিএকসঙ্গে ওয়ার্ন ও টেন্ডুলকার। ছবি: এএফপিক্যারিয়ারে অনেক বড় একটা সময়জুড়ে দুজনের দারুণ প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছিল। শেন ওয়ার্ন লেগ স্পিনের ঘূর্ণিতে নিতে চাইতেন শচীন টেন্ডুলকারের উইকেট, টেন্ডুলকার ডাউন দ্য উইকেটে এসে ওয়ার্নের বলগুলো আছড়ে ফেলতে চাইতেন সীমানায়। তবে দুজনের যে একে অন্যের প্রতি সম্মানের শেষ নেই, তা জানিয়ে দিতেও সব সময়ই অকুণ্ঠ ছিলেন ওয়ার্ন-টেন্ডুলকার। তবে সেই ওয়ার্নই এবার নিজের বেছে নেওয়া একটা একাদশে রাখেননি টেন্ডুলকারকে!

ক্রিকেটের প্রায় সব একাদশে টেন্ডুলকার অনায়াসেই ঢুকে যাবেন সত্যি, তবে ওয়ার্নের এই দলে ভারতীয় ব্যাটিং কিংবদন্তিকে না রাখা নিয়ে সম্ভবত বিতর্ক খুব বেশি হবে না। দলটা যে ওয়ার্নের চোখে শুধু ভারতীয় ক্রিকেটারদের নিয়ে গড়া আইপিএলের সেরা একাদশ! আর আইপিএলে টেন্ডুলকার খেলেছেনই সব মিলিয়ে মাত্র ৭৮ ম্যাচ। তাতে ১টি সেঞ্চুরি ও ১৩টি ফিফটি মিলিয়ে তাঁর রান ২৩৩৪। গড় ৩৪.৮৬, স্ট্রাইক রেট ১১৯.৮১। তবে টেন্ডুলকার না থাকলেও এই দলে বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, মহেন্দ্র সিং ধোনিরা আছেন। আর চমক হয়ে হয়তো আসবে তুলনায় অখ্যাত মুনাফ প্যাটেল আর সিদ্ধার্থ ত্রিভেদীর জায়গা পাওয়া।

২০০৮ সালে আইপিএলের প্রথম আসরে শিরোপাজয়ী রাজস্থান রয়্যালসের অধিনায়ক ওয়ার্ন দলটা ঘোষণা করেছেন ইনস্টাগ্রামে এক লাইভ ভিডিওতে। করোনাভাইরাসের কারণে সব বন্ধ, ঘরে বসে থেকে এসব দল ঘোষণার জন্য মোক্ষম সময়ই হয়তো এখন। দলে ওপেনার হিসেবে রোহিতের সঙ্গে নামবেন বীরেন্দর শেবাগকে। কোহলি যথারীতি তিনে। চারে নামবেন যুবরাজ সিং। পাঁচে রাজস্থান রয়্যালসে ওয়ার্নের সাবেক সতীর্থ ইউসুফ পাঠান। যাঁকে নিয়ে প্রশংসা ঝরল অস্ট্রেলিয়ান লেগ স্পিনিং কিংবদন্তির কণ্ঠে, ‘মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের বিপক্ষে ইউসুফ অসাধারণ একটা সেঞ্চুরি করেছিল। ২০০৮ আইপিএলের ফাইনালেও ও দারুণ একটা ইনিংস খেলেছিল।’

ওয়ার্নের চোখে ছয়ে নামা ধোনি এই দলের ‘ফিনিশার’, সাতে নামবেন রবীন্দ্র জাদেজা। এরপর স্পিন বোলিংয়ের বৈচিত্র্য আনতে থাকছেন হরভজন সিং। কিন্তু পেস বোলিংয়ে গিয়েই যা চমক দেখালেন ওয়ার্ন। জহির খান থাকাটা খুবই স্বাভাবিক, কিন্তু তাঁর পাশে অন্য দুই পেসার হিসেবে আছেন মিডিয়াম পেসার মুনাফ প্যাটেল ও সিদ্ধার্থ ত্রিভেদী। প্যাটেল তা-ও ভারতের জার্সিতে ৭০টি ওয়ানডে, ১৩টি টেস্ট ও ৩টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন, ত্রিভেদী তো কখনো জাতীয় দলেই খেলেননি!

হয়তো ২০০৮ আইপিএলে রাজস্থানের জার্সিতে ওয়ার্নের ভরসার প্রতিদান দিয়েছেন দুজন, সে কারণেই দলে সুযোগ পাওয়া!

ওয়ার্নের চোখে আইপিএলের ভারতীয় একাদশ: রোহিত, শেবাগ, কোহলি, যুবরাজ, ইউসুফ, ধোনি, জাদেজা, হরভজন, ত্রিভেদী, মুনাফ, জহির।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *