করোনা মোকাবিলায় সরকারকে ১২ দফা প্রস্তাবনা মান্নার

বাংলাদেশ

দেরিতে হলেও করোনা মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শীর্ষ নেতা ওনাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। একইসঙ্গে সরকারকে ১২ দফা প্রস্তাবনাও দিয়েছেন তিনি।

বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ প্রস্তাবনা দেন।
সাবেক এই ছাত্রনেতা বলেন, দেশের এই মহা দুর্যোগকালীন সময়ে আমি কোন রাজনীতির কথা বলছি না। দেরিতে হলেও সরকার যে ব্যবস্থাগুলো গ্রহণ করছে তার সাধুবাদ জানাচ্ছি। কিন্তু শুরু থেকে যে সীমাহীন গাফিলতি তারা করেছে, তার খেসারত পুরো দেশ দিচ্ছে এবং এর শেষ কোথায় সেটাও আমরা জানি না।

সরকারকে দেয়া ১২ দফা প্রস্তাবনার মধ্যে রয়েছে, চিকিৎসকদের জরুরি ভিত্তিতে পর্যাপ্ত সুরক্ষা উপকরণ সরবরাহ করতে হবে। দেশকে আনুষ্ঠানিকভাবে এখনি লকডাউন ঘোষণা করতে হবে। এই ব্যাপারে সরকারের দ্বিধার কারণে বিভিন্ন এলাকায় মানুষজন ইচ্ছামতো ঘুরে বেড়াচ্ছেন এবং সেই কারণে এই রোগ আরও ছড়িয়ে পড়ছে। জনগণকে বাসায় থাকা নিশ্চিত করার জন্য মাঠ পর্যায়ে সেনা সদস্যের সংখ্যা বৃদ্ধি করতে হবে এবং সেনাবাহিনীকে আরও বেশি ক্ষমতা প্রদান করতে হবে।

তিনি বলেন, এই মুহূর্তে সকল গার্মেন্টস কারখানা বন্ধ ঘোষণা করা হোক। প্রতিটি গার্মেন্টকর্মীকে বকেয়া বেতন এই মুহূর্তে পরিশোধ করতে হবে। সরকারি প্রণোদনার অর্থের মাধ্যমে গার্মেন্টকর্মীদের আগামী দুই মাসের বেতনও এই মুহূর্তেই দিতে হবে। সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতের জন্য কারখানায় না ডেকে তাদের এই অর্থ ব্যাংক অথবা মোবাইল ব্যাংকিংয়ে একাউন্টে সরাসরি দিতে হবে।

হতদরিদ্র মানুষদের জন্য এখনি আগামী তিন মাসের খাদ্য সাহায্য নিশ্চিত করতে হবে এবং সেটা তাদের বাসায় পৌঁছে দিতে হবে। বিভিন্ন এলাকায় ত্রাণ বিতরণের কারণে জনসমাগম হবার মাধ্যমে করোনা ছড়িয়ে পড়ছে। নিম্ন আয়ের মানুষ যাদের বাড়ি ভাড়া ৫ হাজার টাকার মধ্যে তাদের বাড়ি ভাড়া মওকুফ করার ব্যবস্থা নিতে হবে। প্রয়োজনে তালিকা অনুযায়ী স্থানীয় প্রশাসন/জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে বাড়ি ওয়ালাদের সঙ্গে আলোচনা করে ব্যবস্থা নিতে হবে।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *