হজের নিবন্ধনের সময় ফের বাড়ল নিবন্ধনের সময় আগামী ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত

ইসলামিক

হজের নিবন্ধনের সময় ফের বাড়ল
প্রকাশিত : ৮ এপ্রিল ২০২০, ১১:৪৫ এ. এম. Print New 0 0 Google +0 0হজের নিবন্ধনের সময় ফের বাড়ল

অনলাইন রিপোর্টার ॥ হজে গমনেচ্ছুদের নিবন্ধনের সময় ফের বাড়ল। নিবন্ধনের সময় আগামী ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়িয়ে মঙ্গলবার বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়। আগের ঘোষণা অনুযায়ী হজযাত্রী নিবন্ধনের শেষ সময় ছিল আজ (বুধবার, ৮ এপ্রিল)।

গত ১ মার্চ থেকে হজযাত্রী নিবন্ধন শুরু হয়। প্রাথমিকভাবে হজ নিবন্ধনের সময়সীমা ১৫ মার্চ পর্যন্ত বেঁধে দেয়া হয়েছিল। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে অনিশ্চয়তার সৃষ্টি হয়েছে। নিবন্ধনে আগ্রহ দেখাচ্ছেন না মানুষ। এরপর ১২ মার্চ তা ২৫ মার্চ পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়। পরে ২৫ মার্চ ৮ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানোর ঘোষণা দেয়া হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ২০২০ সালের সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ পালনে আগ্রহী প্রাক-নিবন্ধিত ব্যক্তিবর্গের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, ২০২০ সালে হজ পালনে ইচ্ছুক, নিবন্ধনের জন্য পাসপোর্ট জমা প্রদানকারী অনেকে সরকারি ছুটির কারণে ব্যাংক থেকে নিবন্ধন ভাউচার গ্রহণ করতে পারেননি। ইতোমধ্যে নিবন্ধন ভাউচার গ্রহণকারী অনেকে টাকা জমা প্রদান করতে না পারায় নিবন্ধন করতে পারেননি। এমতাবস্থায় ২০২০ সালে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ পালনে ইচ্ছুক ব্যক্তিদের নিবন্ধনের সুবিধার্থে হজযাত্রী নিবন্ধনের সময়সীমা আগামী ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত বর্ধিত করা হলো।

এতে আরও বলা হয়, সরকারি ব্যবস্থাপনায় এ পর্যন্ত সব প্রাক-নিবন্ধিত ব্যক্তিসহ হজে গমনেচ্ছু যে কোনো ব্যক্তি নতুনভাবে একইসঙ্গে প্রাক-নিবন্ধন ও নিবন্ধন করতে পারবেন। অন্যদিকে বেসরকারি ব্যবস্থাপনার প্রাক-নিবন্ধনের সর্বশেষ ক্রমিক ৬ লাখ ৭২ হাজার ১৯৯ পর্যন্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ‘আগে আসলে আগে নিবন্ধন করা হবে’ ভিত্তিতে নিবন্ধন করতে পারবেন। পাসপোর্ট ভেরিফিকেশনের সুবিধার্থে আগামী ১৫ এপ্রিলের মধ্যে সংশ্লিষ্ট নিবন্ধন কেন্দ্রে পাসপোর্ট দাখিল করতে হবে।

‘বেসরকারি ব্যবস্থাপনা হজ পালনে ইচ্ছুক ব্যক্তিরা শুধু এক লাখ ৫১ হাজার ৯৯০ টাকা জমা দিয়ে নিবন্ধন করবেন। আপাতত কোনো অবস্থাতেই এর অতিরিক্ত টাকা জমা দেবেন না। কোনো এজেন্সি নিবন্ধনের জন্য এর অতিরিক্ত টাকা দাবি করলে তাৎক্ষণিকভাবে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়কে জানাতে হবে’ বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

এতে আরও বলা হয়, হজযাত্রী নিবন্ধনের সময় নেয়া অর্থ কোনো অবস্থাতেই এ পর্যায়ে হজ কার্যক্রমবাবদ বাংলাদেশে ব্যয় করা যাবে না এবং সৌদি আরবেও পাঠানো যাবে না। ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অনুমতি ছাড়া কোনো এজেন্সি ব্যাংক থেকে এ টাকা উত্তোলন করতে পারবে না। সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের ব্যবস্থাপকদের এ ব্যাপারে সতর্ক দৃষ্টি রাখার জন্য অনুরোধ করা হলো।

চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ৩০ জুলাই (৯ জিলহজ) পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে। এ বছর সরকারি ব্যবস্থাপনায় ১৭ হাজার ১৯৮ জন ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এক লাখ ২০ হাজারসহ মোট এক লাখ ৩৭ হাজার হজে যেতে পারবেন। তবে বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের কারণে এবার হজ নিয়ে অনিশ্চয়তার সৃষ্টি হয়েছে।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedinmail

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *